trisakti and ramkrishnaEducation Others 

ত্রিশক্তির মহা-জীবন

ত্রিশক্তির তিন অবয়ব। শ্রীরামকৃষ্ণ-শ্রীমা-স্বামীজি। জীব ও জগৎ কল্যাণে তাঁদের ভূমিকা অস্বীকার করার নয়। সারদা মা যিনি ঠাকুরের শক্তি। শ্রীরামকৃষ্ণের জীবন-দর্শন নিজের জীবনের সাথে একাত্মভাবে জড়িয়ে নিয়েছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ। স্বামীজি বলেছিলেন,”জ্ঞান ভক্তি যোগ এবং কর্ম-মুক্তির এই চারটি পথ। প্রত্যেকের কর্তব্য তার উপযুক্ত পথটি অনুসরণ করে চলা। তবে এই যুগে কর্মযোগের উপরেই বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া উচিত।” আবার মা সারদা বলে গিয়েছেন,”যেমন ফুল নাড়তে নাড়তে ঘ্রাণ বের হয়। চন্দন ঘষতে ঘষতে গন্ধ বের হয়,তেমনি ভগবৎতত্ত্ব আলোচনা করতে করতে তত্ত্বজ্ঞানের উদয় হয়…। ” যুগাবতার শ্রী রামকৃষ্ণ বলেছিলেন,”আপনি রাতে অনেক তারা দেখতে পান কিন্তু সূর্য ওঠার সময় নয়। সুতরাং আপনি কি বলতে পারেন যে দিনের বেলায় আকাশে কোনও তারা নেই?যেহেতু আপনার অজ্ঞতার দিনগুলিতে ঈশ্বরকে খুঁজে পাচ্ছেন না। তাই বলবেন না যে ঈশ্বর নেই।” মায়ের চরণ ছুঁয়ে শ্রীরামকৃষ্ণ যা যা বলে গিয়েছেন তাহাই বাণী হয়ে আমাদের মুখে মুখে ঘোরে। তাই অনুভবে-অনুরাগে ও অন্তরপ্রাণে এই ত্রিশক্তি জাগ্রত থাকে। তাঁদের যে মহা-জীবন! (ছবি:সংগৃহীত)

Related posts

Leave a Comment