Sunrise-0 Lifestyle Others 

সুপ্রভাত

আজ রবিবার ২০ মাঘ ১৪৩০; ই: ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ বিশ্ব ক্যান্সার দিবস জন্মদিনঃনারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ভীমসেন জোশীবিরজু মহারাজ প্রয়াণ দিবসঃসত্যেন্দ্রনাথ বসুরবি ঘোষমনমোহন বসু তিথিঃ কৃষ্ণ নবমী, দুপুর ১২:৪৬ পর্যন্ত, পরে কৃষ্ণ দশমী;অনুরাধা নক্ষত্র, রাত্রি ০৩:৪৪ পর্যন্ত, পরে জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র;জন্মরাশি: বৃশ্চিক। সূর্যোদয়: সকাল ০৬:১৮/ সূর্যাস্ত: সন্ধ্যা ০৫:২২(সূর্য্যসিদ্ধান্ত) জোয়ার আরম্ভ:- দিন-০৪:৫৬; রাত-০৫:০১ভাটা আরম্ভ:- দিন-০৯:৪৬; রাত-০৯:৫১ কলকাতা সহ পার্শবর্তী অঞ্চলের আবহাওয়া সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৪ ডি. সে./ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬ ডি. সে.।বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ: ৫৯%বায়ু প্রবাহের সর্বাধিক গতি: ১০ কিমি/ঘন্টাপরিষ্কার আকাশ। (সংকলিত)🌹🙏🙏🙏🌹

Read More
Entertainment 

ভালোবাসা যেরকম পেয়েছি, সেরকম পেয়েছি অপমানও! জানালেন সৌমিতৃষা

বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুণ্ডু। একের পর এক সাফল্যের ধারাবাহিকতায় তিনি এখন তুমুল জনপ্রিয়। তবে সাফল্যের সঙ্গে সঙ্গে তাকে ট্রোলিংয়ের শিকারও হতে হয়। কিন্তু এসব ট্রোলিংয়ের মুখোমুখি হয়েও তিনি থেমে থাকেননি। বরং আরও উজ্জ্বল হয়ে উঠেছেন। সৌমিতৃষা জানান, ট্রোলিংয়ের মুখোমুখি হওয়াটা তার কাছে নতুন কিছু নয়। তারকা হওয়ার মানেই এটা। কেউ ভালো বললে, সঙ্গে খারাপটাও গ্রহণ করতে হবে। তিনি বলেন, “মানুষ আমাকে নিয়ে কথা বলছেন, এটাই আমার ভালোলাগা। মানুষের মনে থেকে যেতে সব শিল্পীই চান। বরং যখন ঘুম থেকে উঠে নিজের নামটা শুনতে পান না, সেদিনই বরং তার খারাপ…

Read More
Entertainment 

সাধুদার জারিজুরি ধরে ফেলল জগদ্ধাত্রী! কী হবে এবার?

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রীতে গত পর্বে দেখা গিয়েছিল, জগদ্ধাত্রী এবং তার টিম দিবিয়া সেনকে ধরতে সক্ষম হয়েছেন। দিবিয়া সেন কৌশিকীকে জানান, উৎসবই এই সবের জন্য দায়ী। সে কৌশিকীর ক্ষমতা এবং সম্পত্তি দখল করতে চায়। এদিকে, দেবু তার স্ত্রী প্রীতিকে জানায়, সে আর ঘর জামাই থাকতে চায় না। সে নিজের একটা ব্যবসা করতে চায়। কিন্তু প্রীতি দেবুর কথায় রাজি হয় না।ঠিক তখনই, কাঁকন দেবুর পায়ে বাটি ছুঁড়ে মারে। জগদ্ধাত্রী এবং সে জানতে পারে, দেবুই কাঁকনের কিডন্যাপার। এখন জগদ্ধাত্রী কীভাবে নিজের বোন কৌশিকীকে এবং কাঁকনকে বাঁচাবে, তা আগামী পর্বগুলোতে দেখা যাবে।

Read More
Entertainment 

প্রেম-টেম অত পোষায় না, একদম সোজা বিয়ে করে সংসার করব! জানালেন সৌমিতৃষা

বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুণ্ডু। ছোটপর্দার পাশাপাশি বড়পর্দায়ও পা রাখতে চলেছেন তিনি। ‘প্রধান’ ছবিতে সুপারস্টার দেবের বিপরীতে অভিনয় করছেন তিনি। সৌমিতৃষা আপাতত সিঙ্গল। তবে প্রেম করতে চান তিনি। তবে তাঁর প্রেমের নিয়মটা একটু অন্যরকম। তিনি হুট করে কারও সঙ্গে ডেটে যাওয়া পছন্দ করেন না। আগে ভালো করে বুঝে নিতে চান, সেই মানুষটা তাঁর জন্য উপযুক্ত কি না। সৌমিতৃষা বলেন, “আমি আগে দেখি মানুষটা আমার মতো কি না। তার মানসিকতা, তার ভাবনা, তার জীবনযাত্রা— সবকিছু মিলে কি না। তারপর সিদ্ধান্ত নিই।” সৌমিতৃষার স্বপ্নের পাত্র একজন ডাক্তার। তিনি বলেন, “আমার ডাক্তার…

Read More
Entertainment 

মল্লিকাদেবীর কেস নিয়ে তদন্ত করতে গিয়ে বিস্ফোরক সত্যি জানতে পারলো জগদ্ধাত্রী!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক “জগদ্ধাত্রী”-তে নতুন মোড় নিয়েছে গল্প। মল্লিকাদেবীর গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর জগদ্ধাত্রী তাকে দেখতে হাসপাতালে যায়। সেখানেই কৌশিকী জগদ্ধাত্রীকে জানায় যে, সে মল্লিকাদেবীর কেস নিয়ে কিছু তথ্য জানতে পেরেছে। কৌশিকী জানায় যে, মল্লিকাদেবী জালচক্রের গাড়িগুলো বের করার জন্যই নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু এই কথা শুনে রাজনাথ রেগে যায় এবং উৎসবকে শাসন করতে থাকে। কারণ রাজনাথ নিজেও জালচক্রের সাথে যুক্ত। উৎসব রাজনাথকে “শাট আপ” বলে সম্বোধন করে। এতে রাজনাথ আরও রেগে যায় এবং উৎসবকে অপমান করে। তখনই জগদ্ধাত্রী এসে উৎসবকে রক্ষা করে। জগদ্ধাত্রী মনে করে, পুরোহিত মশাই সত্যি কথা বলছে…

Read More
Entertainment 

জগদ্ধাত্রীকে ঘিরে ষড়যন্ত্রের জাল! কী হবে এবার?

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রীর নতুন পর্বে দেখা যায়, জগদ্ধাত্রী অর্থাৎ জ্যাস রহস্যের জালভেদ করতে গিয়ে মল্লিকা দেবী গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তাকে দেখতে গিয়ে সেখানে উপস্থিত হন জগদ্ধাত্রী। জগদ্ধাত্রী মনে করেন, এই পুরোহিত মশাই সত্যি কথা বলছেন না। তিনি তার কাছ থেকে কথা বার করার জন্য সব রকম চেষ্টা করছেন। কিন্তু পুরোহিত মশাই কিছুতেই কথা বলছেন না। অন্যদিকে, মুখার্জি পরিবারের চড়ুইভাতের নাম করে দেবো আবারো ষড়যন্ত্র করছে। জগদ্ধাত্রী সেটা ধরে ফেলেন এবং দেবুকে জানান। দেবু জানান, চড়ুইভাতের মূল টার্গেট জগদ্ধাত্রী এবং কৌশিকী। আসন্ন পর্বে দেখা যাবে, জগদ্ধাত্রী কীভাবে…

Read More
swamiji and sarada Education Lifestyle Others 

মহামানবের সাক্ষাৎ জগদম্বা

স্বামীজি এক বিস্ময়। এক মহা আশ্চর্য পুরুষ। সব মিলিয়ে এক মহামানব। চাহনিতে ভক্তি জোগায়। চলায় কথা বলায় জেগে ওঠে মানুষ। স্বামীজির বাণী আজ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। তাঁর উপদেশ লোকের মুখে মুখে ঘোরে। স্বামীজির অনেক কিছুই স্মরণে রেখেছি আমরা । ১৮৯৩ সালের ৩০ জুলাই তিনি শিকাগো পৌঁছেছিলেন। ১২ জানুয়ারি তাঁর জন্মদিবস যুব-দিবস হিসেবে পালিত হয়। তাঁর মতাদর্শে বহু মানুষ দীক্ষিত। স্বামীজি বলে গিয়েছেন,ভালোবাসা ও স্বাধীনতাই উন্নতির প্রধান দুটি শর্ত। স্বামীজি সবসময় যথার্থ মানুষ-গড়ার কথা বলতেন। স্বামীজির মুখে শোনা গিয়েছে, “আমি এই শরীরটাকে জীর্ণ বস্ত্রের মতো ছেড়ে দিতে পারি কিন্তু কাজ থেকে বিশ্রাম নেব না। যতদিন না মানুষ সেই চরম একত্বে উপনীত হয়, ততদিন সর্বত্র আমি মানুষের মনে প্রেরণা জোগাতে থাকব।”

Read More