Sports 

‘থ্যাঙ্ক ইউ সুনীল’: আবেগের ফল্গুধারায় ভেসে গেল কলকাতা, বিদায়ী কিংবদন্তিকে বিশেষ সংবর্ধনা

কলকাতা: “থ্যাঙ্ক ইউ সুনীল!” – বিদায়ী কিংবদন্তির প্রতি কৃতজ্ঞতায় ভেসে গেল ‘ভারতীয় ফুটবলের রাজধানী’ কলকাতা। ইস্ট-মোহন ভারতীয় দলের হয়ে শেষ ম্যাচ খেলেছেন সুনীল ছেত্রী। আবেগের ফল্গুধারায় ভেসে গেলেন কিংবদন্তি। প্রিয় ক্যাপ্টেনকে বিদায় জানাতে একের পর এক উপহারের ডালি সাজিয়ে দিল কলকাতা।

মুখ্যমন্ত্রী ও ক্রীড়ামন্ত্রীর উপস্থিতি:

  • মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগে থেকেই জানিয়েছিলেন, সুনীলের শেষ ম্যাচে হাজির থাকবেন ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। তিনিই বাংলার তরফে সংবর্ধনা দেবেন বিদায়ী কিংবদন্তিকে।
  • এদিন ম্যাচের শেষে গায়ে জাতীয় পতাকা জড়িয়ে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আসেন সুনীল। ফুলের তোড়া দিয়ে তাকে সম্মান জানান ক্রীড়ামন্ত্রী। বিশেষ মেডেলও পরিয়ে দেন তারকা ফুটবলারের গলায়।

ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের সম্মাননা:

  • আলাদা করে সুনীলকে সম্মান দেয় ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানও। নিজের ফুটবল জীবনের প্রথমদিকে সবুজ-মেরুনের হয়ে খেলেছেন সুনীল।
  • মোহনবাগানের সঙ্গে তাঁর প্রথমবারের চুক্তি সই করার ছবি এদিন উপহার হিসাবে সুনীলের হাতে তুলে দেওয়া হয়।
  • অন্যদিকে লাল-হলুদ জার্সির কেক এবং মিষ্টিও সুনীলকে উপহার দেন ইস্টবেঙ্গলের কর্তারা।

প্রাক্তন সতীর্থদের সংবর্ধনা:

  • কিংবদন্তির শেষ ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছিলেন তাঁর প্রাক্তন সতীর্থরাও।
  • বৃহস্পতিবারের যুবভারতীতে যেন ভারতীয় ফুটবলের চাঁদের হাট বসেছিল। মেহতাব হোসেন থেকে রহিম নবি, আই এম বিজয়ন থেকে ষষ্ঠী দুলে – সকলেই হাজির ছিলেন গ্যালারিতে। তাঁরাও বিশেষ স্মারক তুলে দেন সুনীলের হাতে।

বিদায়বেলার আবেগ:

  • বিদায়বেলার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পরেও মন খারাপ ছুঁয়ে গেল ফুটবলপ্রেমীদের।
  • কান্নাভেজা ভাঙা গলায় বাংলা ভাষায় সুনীল বললেন, “সকলে ভালো থাকবেন।”

উপসংহার:

‘থ্যাঙ্ক ইউ সুনীল!’ – এই স্লোগানে ধ্বনিত হলো কলকাতার ভালোবাসা। বিদায়ী কিংবদন্তিকে বিশেষ সংবর্ধনা জানিয়ে ফুটবলপ্রেমীরা তাকে অমর করে রাখলেন মনে।

Related posts

Leave a Comment